আশাশুনির ভাইস চেয়ারম্যান প্রার্থী রাশেদ সরোয়ার প্রচারে এগিয়ে

 

আশাশুনি (সাতক্ষীরা) প্রতিনিধি

আসন্ন আশাশুনি উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে ভাইস চেয়ারম্যান পদপ্রার্থী প্রবীণ আওয়ামীলীগ নেতা এন এম বি রাশেদ সরোয়ার সেলী নির্বাচনী প্রচার-প্রচারণায় এগিয়ে চলেছেন। দলমত নির্বিশেষে আশাশুনি উপজেলার প্রতিটি ইউনিয়নের উন্নয়নের লক্ষে ভাইস চেয়ারম্যান পদে নির্বাচন করতে মাঠ চষে বেড়াচ্ছেন এ প্রবীণ আওয়ামীলীগ নেতা। জানাগেছে রাশেদ সরোয়ার সেলী একজন আওয়ামীলীগ পরিবারের গর্বীত সন্তান। তার পিতা ১৯৭১সালে নিষ্ঠার সাথে মুক্তিযোদ্ধাদের সংগঠকের দায়িত্ব পালন করেছিলেন। এছাড়া তিনি ১৯৬৬ থেকে ১৯৭৭ ইং সাল পর্যন্ত উপজেলা আওয়ামীলীগের সাধারণ সম্পাদকের দায়িত্ব পালন করেছিলেন। বঙ্গবন্ধুর মৃত্যুন্তে তৎকালিন দেশের ভয়ঙ্কার পরিস্থিতিতে ভাইস চেয়ারম্যান প্রার্থী রাশেদ সরোয়ার সেলীর মেজ কাকা এস এম সামছুল আলম উপজেলা আওয়ামীলীগের আহবায়ক হিসেবে দায়িত্ব গ্রহণ করেন। রাশেদ সরোয়ার সেলী ১৯৭৭সাল থেকে ১৯৯০সাল পর্যন্ত আশাশুনি উপজেলা ছাত্রলীগের সভাপতি হিসেবে নিষ্ঠার সাথে দায়িত্ব পালন করেন। একই সাথে ১৯৯০সালে তিনি আশাশুনি উপজেলা ছাত্র ঐক্যসংগ্রাম পরিষদের পর্যাক্রমিক আহবায়ক ছিলেন। ১৯৯১ থেকে ১৯৯২পর্যন্ত উপজেলা যুবলীগ সভাপতি, ১৯৯২ থেকে ১৯৯৬সাল পর্যন্ত জেলা যুবলীগ সভাপতি, ১৯৯৫সালে সরকার পতন আন্দোলন ঐক্য সংগ্রাম পরিষদের আশাশুনি উপজেলা সদস্য সচিব হিসেবে দায়িত্ব পালন করেন। ১৯৯৬ সাল থেকে ১৯৯৮ সাল পর্যন্ত জেলা যুবলীগের যুগ্ম আহবায়ক, ১৯৯৪সাল থেকে ১৯৯৮সাল পর্যন্ত উপজেলা আওয়ামীলীগের দপ্তর সম্পাদক, ১৯৯৮সাল থেকে ২০০৮সাল পর্যন্ত উপজেলা আওয়ামীলীগের সাংগঠনিক সম্পাদক, ২০০৯সাল থেকে বর্তমানে সাতক্ষীরা জেলা কৃষকলীগের সাংগঠনিক সম্পাদক হিসেবে নিষ্ঠার সাথে দায়িত্ব পালন করে আসছেন। তার ছোট ভাই স্বাপন সরদার সাতক্ষীরা জেলা ছাত্রলীগের সহ সভাপতি হিসেবে দায়িত্ব পালন করেছিলেন। তার ছোট বোন লিপি পারভীন বর্তমান আশাশুনি উপজেলা আওয়ামী লীগের মহিলা বিষয়ক সম্পাদক।

এন এম বি রাশেদ সরোয়ার সেলী জানান, মানববতার নেত্রী শেখ হাসিনার ২০২১ টু ২০৪১সাল মিশন ও ভিষন বাস্তবায়নের মধ্য দিয়ে বাংলাদেশকে একটি উন্নয়নশীল রাষ্ট্র হিসেবে গড়ার প্রত্যয় এবং তারই ধারাবাহিকতায় আশাশুনি উপজেলাকে একটি মডেল উপজেলায় পরিনত করতে তিনি উপজেলা পরিষদের একটি গুরুত্বপূর্ণ পদ ভাইস চেয়ারম্যান প্রার্থী হিসেবে নির্বাচন করতে যাচ্ছেন। তিনি আরও বলেন আশাশুনি উপজেলা থেকে সন্ত্রাস, দূর্ণীতি, জঙ্গিবাদ ও যুবসমাজকে রক্ষায় আশাশুনিকে মাদক মুক্ত উপজেলায় পরিনত করতে তিনি ইতি মধ্যে কাজ করে যাচ্ছেন। নির্বাচনকে সামনে রেখে তিনি সকাল থেকে উপজেলার বিভিন্ন ইউনিয়নে পৃথক পৃথক স্থানে ন্থানীয় সাধারণ ভোটাদের সাথে নির্বাচনী মত বিনিময় ও গনসংযোগ করছেন। তিনি ভাইস চেয়ারম্যান পদের মনোনয়ন পত্র আগামী ২৫ ফেব্রæয়ারী উপজেলা নির্বাচন কর্মকতার কাছে জমা দিবেন। এরই আলোকে শিক্ষক, সাংবাদিক, কৃষিজীবি, শ্রম ও কর্মজীবি, ডাক্তার, কামার, কুমার, তাতী, ব্যবসায়ী, ছাত্র-ছাত্রীসহ সকল পেশাজীবি, মনব মানবীর কাছে আসন্ন উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে ভাইস চেয়ারম্যান পদে সকলের ও আর্শিবাদ ও সমর্থন কামনা করেছেন।

শেয়ার করুন:

Leave a Reply

Your email address will not be published.