‘আমরা যে কারও বিপক্ষে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করতে পারি’

লন্ডনের ওয়েম্বলি স্টেডিয়াম, কিন্তু হাজার হাজার আর্জেন্টাইন দর্শকে তা পরিণত হলো বুয়েন্স আয়ার্সে। ৮৭ হাজার দর্শকের মধ্যে বেশিরভাগই আর্জেন্টিনার। তাদের হতাশ করেননি লিওনেল মেসিরা। কোপা আমেরিকার চ্যাম্পিয়নরা ৩-০ গোলে ইউরোপ চ্যাম্পিয়ন ইতালিকে হারিয়ে ফাইনালিসিমা জিতে নিলো।

এবারের বিশ্বকাপে ওঠা হয়নি ইতালির। মনে হতে পারে, খর্বশক্তির একটি দলকে হারানো সহজ ছিল আর্জেন্টিনার। কিন্তু মেসি বললেন, এই ম্যাচে তারা দেখিয়ে দিয়েছেন যে কারও বিপক্ষে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করতে পারে আলবিসেলেস্তেরা।

দুটি অ্যাসিস্টে এই ম্যাচের সেরা খেলোয়াড় হয়েছেন মেসি। ম্যাচ শেষে দর্শকদের উপস্থিতিতে অভিভূত সাতবারের ব্যালন ডি’অর জয়ী, ‘এটা ছিল সুন্দর একটি ফাইনাল, আর্জেন্টাইনে ভরা। আমরা যে অভিজ্ঞতা অর্জন করলাম তা সুন্দর। আমরা জানতাম এই ম্যাচটা আকর্ষণীয় হতে যাচ্ছে এবং চ্যাম্পিয়ন হওয়ার জন্য দারুণভাবে সব গোছানো। আমরা যে কারও বিপক্ষে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করতে পারি। আজ ছিল ভালো পরীক্ষা কারণ ইতালি খুব ভালো একটি দল।

দলের প্রথম গোল করা লাউতারো মার্তিনেজ ম্যাচ শেষে বললেন, ‘এটা অমূল্য। যেভাবে সবকিছু হচ্ছে আমরা অনেক খুশি, আমাদের খেলার জন্য এবং এই গ্রুপ কী ধরনের সেটার জন্য। বিশ্বকাপের আগে এখনও কয়েক মাস বাকি এবং আমরা জানি কিছু কিছু জায়গা সংশোধন করতে হবে।’

২৮ বছরের শিরোপা খরা ঘুচিয়ে গত বছর কোপা আমেরিকা জিতেছিল ফাইনালে ব্রাজিলকে হারিয়ে। এক বছরেরও কম সময়ের মধ্যে দ্বিতীয় আন্তর্জাতিক ট্রফি হাতে নিলো আর্জেন্টিনা। তাদের অপরাজেয় থাকার মর্যাদা বাড়িয়ে নিলো ৩২ ম্যাচে।

মার্তিনেজের পাস থেকে প্রথমার্ধে দলের দ্বিতীয় গোল করা অ্যাঞ্জেল ডি মারিয়া বললেন, ‘আমরা কোপা আমেরিকা জেতার পর থেকে সবকিছু পাল্টে গেছে। আমরা চাপ কাটিয়ে উঠেছি এবং খেলা উপভোগ করছি। দারুণ সময় কাটছে এবং সবকিছু সহজ হয়ে গেছে। আমরা উদ্যমী, কিন্তু আমাদের সবসময় মাটিতে পা রাখতে হবে।’

শেয়ার করুন:

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *