আফগানিস্তানের তথ্য ও যোগাযোগ মন্ত্রণালয়ে হামলা

 

 

দক্ষিণাঞ্চল ডেস্ক

আফগানিস্তানের রাজধানী কাবুলের কেন্দ্রস্থলে তথ্য ও যোগাযোগ মন্ত্রণালয়ের কাছে বিস্ফোরণ ও গুলিবর্ষণের শব্দ শোনা গেছে। গতকাল শনিবার সকালে বন্দুকধারীরা মন্ত্রণালয়টিতে হামলা চালিয়েছে বলে খবর বার্তা সংস্থা রয়টার্সের।

বিবিসি জানিয়েছে, স্থানীয় সময় সকাল প্রায় ১১টা ৪০ মিনিটের দিকে বিস্ফোরণটি ঘটেছে। নগরীর ব্যস্ততম বাণিজ্যিক এলাকার যে বহুতল ভবনটিতে তথ্য মন্ত্রণালয়ের অবস্থান তার প্রবেশ পথে বিস্ফোরণ ঘটানোর মাধ্যমে হামলা শুরু হয়। এরপর শুরু হয় গুলি, যার শব্দ মাইখানেক দূর থেকেও শোনা গেছে।

তিন বন্দুকধারী হামলাটি চালিয়েছে এবং তাদের মধ্যে একজন ভবনটির ভিতরে প্রবেশ করতে সক্ষম হয় বলে বিবিসিকে জানিয়েছে মন্ত্রণালয়টির একটি সূত্র।

বিকালের দিকে স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের মুখপাত্র নাসরাত রাহিমি রয়টার্সকে জানিয়েছেন, নিরাপত্তা বাহিনীর সঙ্গে বন্দুকযুদ্ধে অন্তত দুই হামলাকারী নিহত হয়েছে এবং তারপর থেকে গুলির শব্দ আর শোনা যায়নি। অপর এক হামলাকারী সীমানা দেয়ালের কাছে নিজের শরীরে বাধা বিস্ফোরকের বিস্ফোরণ ঘটিয়েছে বলে জানিয়েছে বিবিসি।

এরপরও ঘটনা শেষ হয়েছে বলে নিশ্চিত কোনো তথ্য পাওয়া যায়নি। পুলিশ ভবনটির আশপাশের এলাকা বন্ধ করে দিয়েছে। শেষ খবর পাওয়া পর্যন্ত কোনো গোষ্ঠী হামলার দায় স্বীকার করেনি। তবে তালেবানের বিদ্রোহীদের সঙ্গে সরকারের আলোচনা স্থগিত হওয়ার পরপর হামলার ঘটনাটি ঘটেছে।

মন্ত্রণালয়টির আশপাশে আরও কয়েকটি মন্ত্রণালয়, প্রেসিডেন্টের বাসভবন ও শহরের সবচেয়ে জনপ্রিয় আবাসিক হোটেলটির অবস্থান। কাবুলে হাতেগোনা যে কয়টি হোটেলে এখনো বিদেশি পর্যটকরা উঠেন অত্যন্ত সুরক্ষিত সেরেনা হোটেল তার অন্যতম।

তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি মন্ত্রণালয়ের ১৮তলা ভবনটি কাবুলের অন্যতম সবচেয়ে উঁচু ভবন। ভবনটি থেকে কয়েকশত বেসামরিককে সরিয়ে নেওয়া হয়েছে বলে জানিয়েছে স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়।

 

 

শেয়ার করুন:

Leave a Reply

Your email address will not be published.