আটরা পুলিশ ফাঁড়ীর পাশে বাসার সবাইকে বেধে রেখে ডাকাতি

খানজাহান আলী থানা প্রতিনিধি
খুলনার খানজাহান আলী থানাধীন আটরা পুলিশ ফাঁড়ীর মাত্র দুইশ গজের মধ্যে হোটেল ব্যবসায়ী মোঃ আব্দুর রহিম এবং তার মাতা পারুল বেগমকে বেধে রেখে দেশীয় অস্ত্রের মুখে জিম্মি করে নগদ অর্থ, স্বর্ণালংকার  মোবাইলসহ প্রায় দেড় লক্ষ টাকার মালামাল লুট করে নিয়ে গেছে সঙ্গবদ্ধ মুখোশ পরিহিত দুষ্কৃতিকারীরা।
ভুক্তভোগীরা জানান, শুক্রবার অনুমানিক রাতে ২টায় রহিমের বাড়ীর গেটের গ্রীলের তালা ভেঙ্গে ভিতরে প্রবেশ করে। কাঠের গুড়ী দিয়ে ঘরের দর্জায় আঘাত করে সংঘবন্ধ ১০/১২জন মুখোশধারী দুষ্কৃতিকারীরা ব্যবাসায়ী আঃ রহিম এবং তার মায়ের হাত-পা এবং মুখ বেধে রহিমের স্ত্রী রিনি বেগমের গলায় দেশীয় অন্ত্র ধরে জিম্মি করে ঘরের আলমেরীর মধ্যে রাখা নগদ ২৯ হাজার টাকা, দেড় ভরী স্বর্ণের অলংঙ্গার. দুইটি দামী মোবাইল এবং দুটি বিদেশী টর্চ লাইট লুট করে। এ সময় বাড়ীর গৃহকর্তা আঃ রহিম চিৎকার দেওয়ার চেষ্টা করলে দূষ্কৃতিকারীরা তাদের হাতে থাকা দেশীয় অস্ত্র ছুরি দিয়ে ভয়ভীতি প্রদর্শন করে। ঘটনার পর সকালে পুলিশের উর্ধতন কর্মকর্তা, খানজাহান আলী থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা মোঃ শফিকুল ইসলাম, স্থানীয় চেয়ারম্যান শেখ মনিরুল ইসলাম ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেন। এ ব্যাপারে পরিবারের পক্ষ থেকে থানায় মামলা করা হবে বলে ভুক্তভোগীরা জানিয়েছেন।

শেয়ার করুন:

Leave a Reply

Your email address will not be published.