February 21, 2024
জাতীয়

আগস্টে তাপমাত্রা বেশি ছিল ১.৮ ডিগ্রি, সেপ্টেম্বরে বন্যা

দক্ষিণাঞ্চল ডেস্ক

শেষ হওয়া আগস্ট মাসে স্বাভাবিকের চেয়ে প্রায় দুই ডিগ্রি সেলসিয়াস বেশি ছিল দেশের তাপমাত্রা। বৃষ্টিপাত কম হওয়ায় গত মাসে গরমও অনুভূত হয়েছে অনেক বেশি। তবে সেপ্টেম্বরে তাপমাত্রা ধীরে ধীরে কমতে শুরু করেছে, আর এ মাসে দেশের উত্তরপূর্বাঞ্চল ও দক্ষিণপূর্বাঞ্চলে স্বল্পমেয়াদি বন্যা পরিস্থিতির সৃষ্টি হতে পারে বলে জানিয়েছে আবহাওয়া অধিদপ্তর।

আবহাওয়া অধিদপ্তর সেপ্টেম্বর মাসের পূর্বাভাসে জানিয়েছে, এ মাসে দেশে স্বাভাবিক বৃষ্টিপাত হতে পারে। সেপ্টেম্বরে বঙ্গোপসাগরে ১-২টি মৌসুমি নিম্নচাপ সৃষ্টি হতে পারে।

নদ-নদীর অবস্থায় বলা হয়েছে, সেপ্টেম্বর মাসে মৌসুমি বৃষ্টিপাতজনিত ভারী বর্ষণের প্রভাবে বাংলাদেশের উত্তরপূর্বাঞ্চল ও দক্ষিণপূর্বাঞ্চলের কয়েকটি স্থানে স্বল্পমেয়াদি বন্যা পরিস্থিতির সৃষ্টি হতে পারে। তবে দেশের অন্যত্র প্রধান নদীগুলোর পানির সমতল বিপদসীমার নিচ দিয়ে প্রবাহিত হতে পারে বলে জানিয়েছে আবহাওয়া অফিস।

আবহাওয়া অফিস জানায়, আগস্ট মাসে সারাদেশে স্বাভাবিক অপেক্ষা ২৩ দশমিক ২ শতাংশ কম বৃষ্টিপাত হয়েছে। তবে খুলনা ও বরিশাল বিভাগে স্বাভাবিক বৃষ্টিপাত হয়। সক্রিয় মৌসুমি বায়ুর প্রভাবে ২৩ আগস্ট দৈনিক সর্বোচ্চ ২২২ মিলিমিটার বৃষ্টিপাত রেকর্ড করা হয় টেকনাফে। আগস্টে বঙ্গোপসাগরে পাঁচটি লঘুচাপের সৃষ্টি হয়।

মৌসুমি বায়ু কম সক্রিয় থাকায় ৫-৬, ১১-১২ ও ২২ আগস্ট পশ্চিমাঞ্চলের অনেক স্থানে মৃদু তাপপ্রবাহ বয়ে যায়। ১২ আগস্ট মাসের সর্বোচ্চ ৩৮ দশমিক ৪ ডিগ্রি সেলসিয়াস তাপমাত্রা রেকর্ড করা হয় দিনাজপুরে।

অফিস আরো জানায়, আগস্ট মাসে সর্বোচ্চ ও সর্বনিম্ন তাপমাত্রা স্বাভাবিক অপেক্ষা যথাক্রমে ১.৮ ও ০.৮ ডিগ্রি সেলসিয়াস বেশি ছিল। তবে বৃষ্টিপাতের দিন সংখ্যা, লঘুচাপ এবং কৃষি আবহাওয়া পূর্বাভাসের  সঙ্গে সংগতিপূর্ণ ছিল।

এদিকে আবহাওয়ার ২৪ ঘণ্টার পূর্বাভাসে বলা হয়েছে, মৌসুমি বায়ু বাংলাদেশের উপর মোটামুটি সক্রিয় এবং উত্তর বঙ্গোপসাগরের মাঝারি থেকে প্রবল অবস্থায় বিরাজমান রয়েছে।

খুলনা ও বরিশাল বিভাগের অনেক জায়গায় এবং রংপুর, রাজশাহী, ঢাকা, ময়মনসিংহ, চট্টগ্রাম ও সিলেট বিভাগের কিছু কিছু জায়গায় অস্থায়ী দমকা হাওয়াসহ হালকা থেকে মাঝারি ধরনের বৃষ্টি অথবা বজ্রসহ বৃষ্টি হতে পারে। সেই সঙ্গে দেশের কোথাও কোথাও মাঝারি ধরনের ভারী থেকে ভারী বর্ষণ হতে পারে। সারাদেশে দিনের তাপমাত্রা সামান্য হ্রাস এবং রাতের তাপমাত্রা অপরিবর্তিত থাকতে পারে।

আগামী তিন দিনের আবহাওয়ার অবস্থায় বলা হয়েছে, এই সময়ের শেষের দিকে বৃষ্টি/বজ্রবৃষ্টিপাত বৃদ্ধি পেতে পারে। সন্ধ্যা ৬টা পর্যন্ত ২৪ ঘণ্টায় সিলেটে ৪৫, শ্রীমঙ্গলে ২১, খেপুপাড়ায় ২১, দিনাজপুরে ১৬, পটুয়াখালীতে ১৫, বদলগাছিতে ১২, খুলনায় ৫ মিলিমিটারসহ ঢাকায় সামান্য বৃষ্টিপাত হয়েছে। সিলেটে সর্বোচ্চ তাপমাত্রা ছিল ৩৬ দশমিক ৫ ডিগ্রি সেলসিয়াস। আর ঢাকায় ৩৪ দশমিক ৬ ডিগ্রি সেলসিয়াস তাপমাত্রা রেকর্ড করা হয়।

 

শেয়ার করুন:

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *