আইন লঙ্ঘনের প্রমাণ মিলল ‘হাওয়া’ সিনেমার বিরুদ্ধে

‘হাওয়া’ সিনেমার বিরুদ্ধে বন্যপ্রাণী সংরক্ষণ ও নিরাপত্তা আইন -২০১২ লঙ্ঘনের অভিযোগ তুলেছিল ৩৩ টি পরিবেশবাদী সংগঠন। ছবিতে একটি শালিক পাখিকে খাঁচায় প্রদর্শন ও হত্যা করে খাওয়ার চিত্র দেখানো হয়েছে। একারণে সিনেমাটির প্রদর্শন বন্ধ করে আপত্তিকর দৃশ্য সংস্কারের দাবি জানায় তারা। পরিবেশবাদীদের উদ্বেগের কারণে বন বিভাগের বন্য প্রাণী অপরাধ দমনের চার সদস্যের একটি ইউনিট বৃহস্পতিবার (১১ আগস্ট) স্টার সিনেপ্লেক্সে চলচ্চিত্রটি দেখে। এরপর তারাও জানায়, আইন অমান্য করা হয়েছে এই ছবিতে।

এ প্রসঙ্গে বন্য প্রাণী ও জীববৈচিত্র্য সংরক্ষণ কর্মকর্তা রথীন্দ্র কুমার বিশ্বাস বলেন, ‘সিনেমা দেখার অভিজ্ঞতার আলোকে একটি তদন্ত প্রতিবেদন বন বিভাগে দাখিল করা হবে। পরে মামলা করা হবে কি না, সে ব্যাপারে কর্তৃপক্ষ সিদ্ধান্ত নেবে। আমরা দেখেছি, আইন লঙ্ঘিত হয়েছে। ছবিতে একটি শালিক পাখিকে সারাক্ষণ একটি খাঁচায় বন্দী রাখা হয়েছিল। এটা দেখে দর্শক ধরে নেবেন, পাখি আটকে রাখা যাবে।’

বিষয়টি নিয়ে বন্য প্রাণী অপরাধ দমন ইউনিটের ওয়াইল্ড লাইফ ইন্সপেক্টর অসীম মল্লিক বলেন, ‘এটি নিশ্চিতভাবে আইনের লঙ্ঘন। সিনেমায় তো প্রথমেই বলা হয়েছে, সিগারেট মৃত্যু ঘটায় বা সিগারেট স্বাস্থ্যের জন্য ক্ষতিকর। কিন্তু তারপরও তো সে ধরনের দৃশ্য দেখানো হয়। এটা একটা সতর্কতা। এমন কিছু বিষয় আছে, যেগুলো ঠিকঠাক যাচাই করে পরে পদক্ষেপ নিতে হবে।’

তবে এ বিষয়ে এখনও মুখ খোলেননি ‘হাওয়া’র নির্মাতা মেজবাউর রহমান সুমন। তিনি জানান, আনুষ্ঠানিকভাবে এখনও কিছু জানানো হয়নি তাকে। জানালে বিষয়টি নিয়ে কথা বলবেন।

সমুদ্রের মাঝি-মাল্লার গল্প নিয়ে নির্মাণ করা হয়েছে ‘হাওয়া’। এতে বিভিন্ন চরিত্রে অভিনয় করেছেন চঞ্চল চৌধুরী, শরিফুল রাজ, সুমন আনোয়ার, নাজিফা তুষি, সোহেল মণ্ডল, নাসির উদ্দিন খান, রিজভী রিজু, মাহমুদ আলম, বাবলু বোস প্রমুখ। সিনেমাটির চিত্রনাট্য রচনা করেছেন সুমন, জাহিন ফারুক আমিন ও সুকর্ণ সাহেদ ধীমান।

শেয়ার করুন:

Leave a Reply

Your email address will not be published.