অসুস্থ হয়ে পড়ছে কসবা সীমান্তে অপেক্ষায় থাকা রোহিঙ্গা শিশুরা

দক্ষিণাঞ্চল ডেস্ক
ব্রাহ্মণবাড়িয়ার কসবা সীমান্ত দিয়ে এদেশে ঢোকার অপেক্ষায় থাকা রোহিঙ্গা শিশুরা শীতে অসুস্থ হয়ে পড়ছে। কসবা উপজেলার গোপীনাথপুর ইউনিয়নের চেয়ারম্যান এসএম মান্নান জাহাঙ্গীর সাংবাদিকদের এ কথা জানান।
শুক্রবার সন্ধ্যা ৭টা থেকে বাংলাদেশ-ভারত সীমান্তের ২০২৯ পিলারের কাছে ব্রাহ্মণবাড়িয়ার কসবা উপজেলার কাজিয়াতলী সীমান্ত দিয়ে ৩১ জন রোহিঙ্গা নারী-পুরুষ-শিশু সীমান্ত রেখায় অবস্থান করছে বলে বিজিবি জানিয়েছে।
ইউপি চেয়ারম্যান মান্নান বলেন, অপেক্ষায় থাকা রোহিঙ্গাদের মধ্যে ১৭ শিশু রয়েছে; বাকি ছয়জন নারী ও আটজন পুরুষ। তীব্র শীতে খোলা আকাশের নিচে থাকায় শিশুরা অসুস্থ হয়ে পড়ছে। কাজিয়াতলী সীমান্তের কাঁটাতারের বেড়ার ওপার থেকে ৩১ জন রোহিঙ্গাকে বাংলাদেশে ঢোকানোর চেষ্টা করছে ভারতীয় সীমান্তরক্ষী বাহিনী-বিএসএফ। সকালে ভারতীয় সীমান্তরক্ষীরা তাদের খবার সরবরাহ করেছেন বলে মান্নান জানান।
২৫ বিজিবি ব্যাটালিয়নের অধিনায়ক লেফট্যানেন্ট কর্নেল গোলাম কবীর সাংবাদিকদের বলেন, সীমান্তের শূন্যরেখায় অবস্থানকরীরা বাংলাদেশের নাগরিক নয়। ফলে প্রবেশ করতে দেওয়া হয়নি।
এ বিষয়ে রবিবার বিএসএফের সঙ্গে পতাকা বৈঠকে কথা রয়েছে। বৈঠকের পর তাদের ব্যাপারে সিদ্ধান্ত নেওয়া হবে বলে জানান তিনি। ২০১৭ সালের ২৫ আগস্ট মিয়ানমারের রাখাইনে নতুন করে সেনা অভিযান শুরুর পর এ পর্যন্ত সাত লাখের বেশি রোহিঙ্গা পালিয়ে বাংলাদেশে আশ্রয় নিয়েছে। তাদের কক্সবাজারের কুতুপালংসহ বিভিন্ন ক্যাম্পে রাখা হয়েছে। এর বাইরে গত কয়েক দশকে বাংলাদেশে আসা আরও প্রায় চার লাখ রোহিঙ্গার ভার বহন করে চলেছে বাংলাদেশ। কসবা সীমান্তে অপেক্ষায় থাকা রোহিঙ্গাদের বিএসএফ যেন বাংলাদেশে ঢোকাতে না পারে সেজন্যে বিজিবি সতর্ক অবস্থায় রয়েছে বলে জানানো হয়েছে।

শেয়ার করুন:

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *