June 12, 2024
আঞ্চলিক

অবহেলা নয় ভালবাসা দিয়ে ছাএ-ছাএীদের শিক্ষিত করতে হবে

 

দাকোপে চুনকুড়ি মাধ্যমিক বিদ্যালয় শিক্ষাক্ষেএে মডেল

দাকোপ(খুলনা)প্রতিনিধিঃ অবহেলা নয় ভালবাসা দিয়ে ছাএ-ছাএীদের উন্নত শিক্ষায় শিক্ষিত করতে আপ্রান চেষ্টা করে চলেছেন চুনকুড়ি মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের শিক্ষক কর্মকর্তা বৃন্দ। ১২ জন শিক্ষক-শিক্ষিকা ও ৪ জন ষ্টাফ নিয়ে ২৭৫ জন ছাএ-ছাএীদের মিলন মেলায় প্রতিদিন নতুন নতুন কৌশলে শিক্ষা দান করা হয়। ১০ সদস্যের ম্যানেজিং কমিটি ও শিক্ষক কর্মকর্তা বৃন্দের ঐক্য মতের ভিত্তিতে বিদ্যালয় পরিচালিত হয়। সরজমিন পরিদর্শনে কথা হয় প্রধান শিক্ষক স্বপন কুমার রায়ের সাথে তিনি বলেন, একটি মহল শিক্ষার মান ও বিদ্যালয়ের উন্নয়নকে বাধাঁ গ্রস্ত করতে গভীর ষড়যন্ত করছে। ম্যানেজিং কমিটি ও আমার নামে সাংবাদিকদের মিথ্য তথ্য প্রদান করে হেয়-প্রতিপন্ন করার অপচেষ্টা করছে। আমি উক্ত সংবাদের তীব্র প্রতিবাদ করছি। এসময় অফিস কক্ষে উপস্থিত ছিলেন, সহ-প্রধান শিক্ষক নিত্যানন্দ রায়, সহকারী শিক্ষক গ্রিস মল্লিক, নিবেদন সানা, সৌমিএ কুমার বাইন, কনিকা মন্ডল। সহ-প্রধান শিক্ষক নিত্যানন্দ রায় বলেন, ম্যানেজিং কমিটি ও প্রধান শিক্ষকের কঠোর তদারকির ফলে শিক্ষক-কর্মচারী স্ব-স্ব দায়িত্বে অত্যন্ত সচেতন। প্রতি বছর জুনিয়র স্কলারশিপ ও এস,এস,সি পরিক্ষার ফলাফল বৃদ্ধি পেয়েছে। মাল্টিমিডিয়ার মাধ্যমে শ্রেনী পাঠদানের ব্যবস্থা রহেছে। সহকারী শিক্ষক নিবেদন সানা বলেন, সরকারী ও বিভিন্ন এন,জি,ও এবং বিদ্যালয়ের সীমিত অর্থায়নে বিভিন্ন উন্নয়ন মূলক কর্মকান্ড বাস্তবায়িত হয়েছে এবং দ্রæুত গতিতে এগিয়ে চলছে দোতালা ভবনের নির্মান কাজ। স্বাস্থ্য স¤্রত পয়ঃপ্রনালী ব্যবস্থা, পানীয় জলের সু-ব্যবস্থা, হ্যান্ড ওয়াশ ব্যবস্থা, সু-সজ্জিত বিজ্ঞানাগার, মাল্টিমিডিয়া ক্লাস রুম পরিলক্ষিত। সহকারী শিক্ষক সৌমিএ কুমার বাইন বলেন, যথাযোগ্য মর্যাদায় জাতীয় অনুষ্ঠান ও ক্রীড়া, সাংস্কৃতিক প্রতিযোগীতা পালন করা হয়। সাংস্কৃতিক অঙ্গনকে প্রসারিত করতে সপ্তাহে এক দিন ছাএ-ছাএীদের ক্লাস করানো হয়। প্রতিবছরের ন্যায় এবারও মা সমাবেশ পালিত হয়। সহকারী শিক্ষিকা কনিকা মন্ডল বলেন, প্রধান শিক্ষক স্বপন কুমার রায়ের নামে যে মিথ্যা সংবাদ প্রকাশীত হয়েছে আমরা বিদ্যালয়ের পক্ষ থেকে সেই সংবাদের তীব্র নিন্দা জ্ঞাপন করি। কথা হয় ম্যানেজিং কমিটির সভাপতি বঙ্কিম রপ্তানের সাথে তিনি বলেন, যে কাজ করে তার ভুল হয় যে করেনা তার কোন ভুল নেই। মিথ্যা অপবাদ না দিয়ে আমার ভুল ধরিয়ে দিন আমি শুধরিয়ে নেব। ম্যানেজিং কমিটির দায়িত্ব পাওয়ার পর দাকোপের বুকে বিদ্যালয়টিকে মডেল হিসাবে গড়ে তুলতে আপ্রান চেষ্টা করছি। ছাএ-ছাএীদের উন্নত শিক্ষায় শিক্ষিত করতে প্রতি বছরের শেষ অধাংশে শিক্ষার্থীদের বিদ্যালয়ে রেখে রাএিকালীন ক্লাসের ব্যবস্থা করা হয়। সু-সজ্জিত বিজ্ঞানাগারের আসবাবপএের ব্যবস্থা, লেকচার টেবিল এবং বসার বেঞ্চের ব্যবস্থা করা হয়। বিদ্যালয়ের পরিবেশ ফিরিয়ে আনতে সকল ভবনের রং করা হয়। অভিবাবক ও সুশিল সমাজ নিয়ে জবাবদিহিতা নিশ্চিত করতে সুধী-সমাবেশের ব্যবস্থা করা হবে।

 

 

বাকির হোসেন।

শেয়ার করুন:

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *