দুর্ঘটনার পর জ্বলন্ত মাইক্রোবাসে তিনজনের মৃত্যু

দক্ষিণাঞ্চল ডেস্ক
বিদেশ ফেরত ছেলেকে বিমানবন্দর থেকে আনতে কুমিল­া থেকে চট্টগ্রামে যাওয়ার পথে সড়ক দুর্ঘটনায় জীবন্ত দগ্ধ হলেন এক দম্পতিসহ তিনজন। গতকাল মঙ্গলবার সকাল সাড়ে ৭টার দিকে মিরসরাই উপজেলার নিজমাপুর কলেজের কাছে ঢাকা-চট্টগ্রাম মহাসড়কে এ দুর্ঘটনা ঘটে বলে মিরসরাই থানার ওসি জাহিদুল কবির জানান।
নিহতরা হলেন- কুমিল­ার মনোহরগঞ্জের আব্দুর রহমান (৬৫), তার স্ত্রী কুলসুম বেগম (৫৫) এবং মাইক্রোবাসের চালক রুহুল আমিন (৩৫)। আব্দুর রহমানের দুই নাতি রনি ও রাসেলকে মাইক্রোবাস থেকে উদ্ধার করে হাসপাতালে পাঠিয়েছেন ফায়ার সার্ভিস কর্মীরা।
চট্টগ্রাম ফায়ার সার্ভিস ও সিভিল ডিফেন্সের উপ-সহকারী পরিচালক মো. জসীম উদ্দিন বলেন, মাইক্রোবাস ও কভার্ড ভ্যান দুটোই চট্টগ্রামের দিকে যাচ্ছিল। হাদি ফকির হাট এলাকায় কভার্ড ভ্যানের পেছন দিকে সজোরে ধাক্কা দিয়ে মাইক্রোবাসটি আটকে যায়। ওই অবস্থায় মাইক্রোবাসটিকে নিজামপুর বাজার পর্যন্ত টেনে নিয়ে যায় কভার্ড ভ্যানটি। এর মধ্যে মাইক্রোবাসে আগুন ধরে যায়। এতে মাইক্রোবাস আরোহী পাঁচজনের মধ্যে তিনজন জীবন্ত দগ্ধ হয়।
সীতাকুণ্ড ফায়ার স্টেশনের কর্মকর্তা ওয়াসী আজাদ জানান, দুই গাড়ির মধ্যে সংঘর্ষের পর মাইক্রোবাসটির সিলিন্ডার বিস্ফোরিত হয়। মাইক্রোবাসের জানালা ভেঙে রনি ও রাসেলকে বের করতে পারায় তারা প্রাণে বেঁচে যায়। দুর্ঘটনার পর স্বজনরা এসে নিহতদের পরিচয় শনাক্ত করেন বলে মিরসরাই ফায়ার স্টেশনের কর্মকর্তা রবিউল আজম জানান।
তিনি বলেন, রহমান-কুলমুস দম্পতির এক ছেলে বিদেশ থেকে আসার কথা। ছেলেকে আনতে সকালে তারা কুমিল­া থেকে চট্টগ্রামের শাহ আমানত বিমান বন্দরে যাওয়ার পথে দুর্ঘটনায় পড়েন।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Social media & sharing icons powered by UltimatelySocial