যুদ্ধের মধ্যেই তেল ও গ্যাস থেকে রাশিয়ার আয় বেড়েছে ২৮ শতাংশ

তেল ও গ্যাস থেকে রাশিয়ার আয় বেড়েছে ২৮ শতাংশ। ২০২২ সালে ইউক্রেন যুদ্ধের মধ্যেই এমন তথ্য পাওয়া গেছে। এক শীর্ষ রুশ কর্মকর্তা এমন তথ্য দিয়েছেন।

রাশিয়ার প্রধানমন্ত্রী মিখাইল মিশুস্টিন এবং অন্যান্য মন্ত্রীদের মধ্যে একটি বৈঠকে আলেকজান্ডার নোভাক বলেছেন, ২০২২ সালে জ্বালানি তেল ও গ্যাস থেকে রাশিয়ার আয় ২.৫ ট্রিলিয়ন রাশিয়ান রুবেল (৩৬.৫ বিলিয়ন মার্কিন ডলার) বেড়েছে।

সোমবার নোভাক জানান, রাশিয়ায় তেলের উৎপাদন আগের বছর থেকে দুই শতাংশ বেড়েছে, অর্থাৎ বর্তমানে রুশ তেল উৎপাদন ৫৩৫ মিলিয়ন টন বেড়েছে। ইউক্রেনের যুদ্ধে পশ্চিমা নিষেধাজ্ঞা থাকা সত্ত্বেও তেল রফতানি ৭ শতাংশ বৃদ্ধি পেয়েছে।

তিনি বলেন, সংক্ষেপে আমি আবারও উল্লেখ করতে চাই যে গত বছর নানান জটিলতা থাকলেও জ্বালানি এবং শক্তি খাতে স্থিতিশীল এসেছে। বাইরের (পশ্চিমা দেশগুলোর) বিভিন্ন চ্যালেঞ্জ প্রতিরোধ করে জ্বালানি খাতে রফতানির সম্ভাবনা আরও বেড়েছে। এর ফলে দেশের জ্বালানি নিরাপত্তা আরও বেড়েছে। এ খাত থেকে রাশিয়ান ফেডারেশনের বাজেটের একটি উল্লেখযোগ্য অংশ গঠন করা হয়েছে।

এদিকে বৃহস্পতিবার রুশ সরকারকে বেশ কয়েকটি কাজ অর্পণ করেছেন প্রেসিডেন্ট ভ্লাদিমির পুতিন। এসব কাজের মধ্যে আছে, বিদেশি দেশগুলোর সঙ্গে অর্থনৈতিক সম্পর্ক সম্প্রসারণ, পণ্য সরবরাহে নতুন করিডোর নির্মাণ এবং রাশিয়ান অর্থনীতির প্রযুক্তিগত সক্ষমতা বৃদ্ধি করা। এছাড়া পশ্চিমা দেশগুলোর আরোপিত নিষেধাজ্ঞার মুখে রাশিয়ার আর্থিক সার্বভৌমত্ব শক্তিশালী করার বিষয়ে জোর দিয়েছেন পুতিন।

সূত্র : ইয়েনি শাফাক

শেয়ার করুন: