খুলনায় মানিপাল এএফসি হাসপাতালের কর্মীদের অবস্থান কর্মসূচি পালন

দ. প্রতিবেদক
বকেয়া বেতন পরিশোধের দাবিতে খুলনা মহানগরীর সোনাডাঙ্গাস্থ মানিপাল এএফসি হাসপাতাল (সাবেক ফর্টিস) এর কর্মকর্তা-কর্মচারীরা হাসপাতালের সামনে অবস্থান কর্মসূচি পালন করেন। বুধবার সকাল ১০টায় এ কর্মসূচি পালন করা হয়। কর্মসূচির শুরুর প্রাক্কালে হাসপাতালের লোকজনের বাধার কারণে সেখানে আন্দোলনরতরা দাঁড়াতে পারেনি। ব্যানার টানাটানি করে ছিনিয়ে নেওয়ার চেষ্টা করা হয়। ফলে অল্প সময়ের মধ্যে তাদের কর্মসূচি সমাপ্ত করতে হয়। অবস্থান কর্মসূচিতে মোঃ বরকত শেখ, সাইফুল বিশ্বাস, জাকারিয়া জনি, আজিজুল হাকিম, সুকেন্দ, সিমা, রনি মল্লিক, আয়শা, সৈয়দ মঞ্জু প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন।
এসময় ভুক্তভোগীরা জানায়, হাসপাতালটি বিগত কয়েক বছর ধরে হাসপাতালে কর্মরতদের বেতন-ভাতা ঠিকমত দিচ্ছে না। ৬০-৭০ জন কর্মীর ৫ থেকে ৬ মাসের অধিক বেতন বকেয়া আছে। যার ফলে ভুক্তভোগীরা সংসার, পরিবার নিয়ে বিপাকে পড়েছেন। হাসপাতালে সাবেক কর্মীরা টাকা চাইতে আসলে তাদের সাথে দুর্ব্যবহার করা হয় এবং হাসপাতালের ভেতরে প্রবেশ করতে দেওয়া হয় না। বর্তমান কর্মীদের চাকরি থেকে ছাঁটাইয়ের ভয় দেখিয়ে কর্মসূচিতে আসতে দেওয়া হয়নি।
আন্দোলনরত কর্মীরা বলেন, দীর্ঘদিন বেতন না পাওয়ার কারণে আমরা পরিবার-পরিজন নিয়ে মানবেতর জীবনযাপন করছি। আমাদের বেতন ও ন্যায্য পাওনার জন্য শত অনুনয়, মিনতি করলেও হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ তাতে কর্ণপাত তো করছেই না বরং নানা তাল-বাহানা ও ছলচাতুরীর আশ্রয় নিচ্ছে। একই সঙ্গে কর্মীদের নিয়ম বহির্ভূতভাবে ছাঁটাই এবং চাকরি ছেড়ে দেওয়ার চাপসহ নানা ধরনের অপচেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছে।
তারা আরও বলেন, আগামী ২৪ ঘণ্টার মধ্যে তাদের পাওনা টাকা পরিশোধ না করলে আগামী ১২ জুন (রবিবার) সকাল ১১টায় তারা জেলা প্রশাসক বরাবর স্মারকলিপি প্রদান করবেন এবং শ্রম ও কর্মসংস্থান প্রতিমন্ত্রীকে বিষয়টি সম্পর্কে অবগত করবেন।
এদিকে হাসপাতালটির মেডিকেল সুপারিনটেনডেন্ট ডা. মুহাইমেন-উল ইসলাম নাঈম বলেন, ‘বকেয়া পরিশোধের বিষয়ে কয়েকদিন আগে সাবেক কর্মীদের সাথে সমঝোতা হয়েছে। তবে এর মধ্যে কয়েকজন বিষয়টি না মেনে অবস্থান কর্মসূচি পালন করার চেষ্টা করে। তিনি বলেন, এই আন্দোলনে বর্তমান কোনো কর্মীর সমর্থন নেই।’

দক্ষিণাঞ্চল প্রতিদিন/ জে এফ জয়

শেয়ার করুন:

Leave a Reply

Your email address will not be published.