ইজতেমাকে কেন্দ্র করে মার্কিন নাগরিকদের ভ্রমণ পর্যালোচনার পরামর্শ

টঙ্গীতে ১৩ থেকে ১৫ জানুয়ারি এবং ২০ থেকে ২২ জানুয়ারি দুই ধাপে অনুষ্ঠিত হতে যাচ্ছে বিশ্ব ইজতেমা। এসময়ে ইজতেমা কেন্দ্রিক ঢাকা এবং এর আশপাশের এলাকায় বাংলাদেশে অবস্থানরত যুক্তরাষ্ট্রের নাগরিকদের ভ্রমণ পর্যালোচনা করার পরামর্শ দিয়েছে দেশটির দূতাবাস।

ঢাকার মার্কিন দূতাবাস এক বার্তায় এই ভ্রমণ পর্যালোচনার পরামর্শ দিয়েছে।

দূতাবাসের বার্তায় বলা হয়েছে, এই ইজতেমা বিশ্বের দ্বিতীয় বৃহত্তম মুসলিম সমাবেশ। বাংলাদেশে আগামী ১৩-১৫ ও ২০-২২ জানুয়ারি টঙ্গীর তুরাগ নদীর তীরে অনুষ্ঠিত হবে। ঢাকার হজরত শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দর থেকে প্রায় ৩ কিলোমিটার উত্তরে এর মূল সমাবেশস্থল। এ সমাবেশে প্রায় চার মিলিয়ন মানুষ অংশগ্রহণ করবে বলে আশা করা হচ্ছে।

ইজতেমাকে কেন্দ্র করে ঢাকাজুড়ে যানবাহন ও পথচারীদের ট্রাফিক প্যাটার্নের ওপর বড় প্রভাব ফেলবে। ঢাকা মেট্রোপলিটন পুলিশ যানজট কমানোর প্রয়াসে ঢাকার বেশ কয়েকটি প্রধান সড়কে যানবাহন চলাচল সীমিত করবে বলে আশা করা হচ্ছে।

দূতাবাসের বার্তায় উল্লেখ করা হয়, যুক্তরাষ্ট্রের নাগরিকদের এই সময়সীমার মধ্যে এবং অতিরিক্ত ট্রানজিট সময় চলাকালে ঢাকার মধ্য দিয়ে এবং এর আশপাশে নির্ধারিত ভ্রমণ পর্যালোচনা করতে বলা হয়। এমন পরিস্থিতিতে ঢাকার হজরত শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে ভ্রমণকারী ব্যক্তিদের তাদের বিমানের টিকিট থাকতে হবে এবং তাদের বিমানের টিকিট পুলিশ চেকপোস্টে উপস্থাপন করতে হতে পারে।

শেয়ার করুন: