পুলিশের বাধায় ইসিতে যেতে না পেরে শাহবাগে বিক্ষোভ

দক্ষিণাঞ্চল ডেস্ক

ঢাকার সিটি ভোটের তারিখ পেছানোর দাবিতে নির্বাচন কমিশন অভিমুখে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় শিক্ষার্থীদের পদযাত্রা পুলিশের বাধায় থমকে গেছে শাহবাগেই। বাধা পেয়ে ক্ষুব্ধ শিক্ষার্থীরা গতকাল বুধবার টানা দ্বিতীয় দিনের মত শাহবাগ মোড় অবরোধ করে এক ঘণ্টা বিক্ষোভ দেখিয়েছে।

আজ বৃহস্পতিবার শিক্ষক-শিক্ষার্থী-কমকর্তা-কর্মচারী সবাইকে নিয়ে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের রাজু ভাস্কর্যের সামনে অবস্থান কর্মসূচি ঘোষণার পাশাপাশি ঢাকার প্রতিটি শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের শিক্ষার্থীদের নিজ নিজ প্রতিষ্ঠানের সামনে অবস্থান কর্মসূচি পালনের আহŸান জানিয়েছে তারা।

অবরোধ চলাকালে এক ব্যক্তি গাড়ি নিয়ে ওই সময় শাহবাগ মোড় পার হতে চাইলে শিক্ষার্থীদের সঙ্গে তার বাকবিতÐা হয়। ওই ব্যক্তি তখন আগ্নেয়াস্ত্র বের করলে বিক্ষুব্ধ শিক্ষার্থীরা অস্ত্র কেড়ে নিয়ে তাকে পিটুনি দিয়ে পুলিশে সোপর্দ করে।

ঢাকার দুই সিটির ভোটের দিন ৩০ জানুয়ারি সরস্বতী পূজার মধ্যে পড়ায় ভোটের তারিখ পরিবর্তনের দাবি জানিয়ে আসছে ডাকসুসহ বিভিন্ন সংগঠন। একজন আইনজীবী এ দাবিতে হাই কোর্টে গেলেও আদালত মঙ্গলবার তা খারিজ করে দেয়। ফলে ভোটের তারিখ সেই ৩০ জানুয়ারিই থাকে।

এরপর মঙ্গলবার বিকাল থেকে প্রায় দুই ঘণ্টা শাহবাগে সড়ক অবরোধ করে বিক্ষোভ দেখায় ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের একদল শিক্ষার্থী। সেখান থেকেই বুধবার নির্বাচন কমিশন ঘেরাওয়ের কর্মসূচি দেওয়া হয়।

সে অনুযায়ী বুধবার বেলা সাড়ে ১২টায় শিক্ষার্থীরা বিশ্ববিদ্যালয়ের রাজু ভাস্কর্যের সামনে অবস্থান নেয়। বিভিন্ন হল থেকে পাঁচ শতাধিক শিক্ষার্থী যোগ দেয় এই কর্মসূচিতে। ঘণ্টাখানেক তারা সেখানে মিছিল ও বিক্ষোভ সমাবেশ করেন।

এই কর্মসূচিতে সংহতি জানিয়ে ডাকসুর এজিএস সাদ্দাম হোসেন বলেন, ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীরা এমন কোনো সিদ্ধান্তকে মেনে নিতে পারে না যাতে সা¤প্রদায়িকতার বহিঃপ্রকাশ ঘটে।

নির্বাচন কমিশনের উদ্দেশ্যে তিনি বলেন, হাই কোর্টের কাঁধে বন্দুক রেখে আপনারা নিজেরা সা¤প্রদায়িক সিদ্ধান্ত নিলে এটা ছাত্র সমাজ মেনে নেবে না। নিবাচন কমিশন সাংবিধানিক এবং স্বাধীন প্রতিষ্ঠান। নিবাচনের তারিখ পরিবর্তনের সিদ্ধান্ত নিবাচন কমিশনকেই নিতে হবে।

সমাবেশ শেষে শিক্ষার্থীরা নির্বাচন কমিশন ঘেরাও করতে পদযাত্রা শুরু করেন। কিন্তু শাহবাগ মোড়ে তাদের আটকে দেয় পুলিশ। এরপর শিক্ষার্থীরা শাহবাগ মোড়ে অবস্থান নিলে বেলা ২টার দিকে গুরুত্বপূর্ণ ওই মোড়ে যান চলাচল বন্ধ হয়ে যায়। প্রায় এক ঘণ্টা সেখানে তাদের বিক্ষোভ চলে। বিকাল ৩টায় সেখানে পরবর্তী কর্মসূচি ঘোষণা করেন আন্দোলনের সমন্বয়ক জগন্নাথ হল ছাত্র সংসদের ভিপি উৎপল বিশ্বাস।

তিনি বলেন, ভোটের তারিখ পরিবর্তনের দাবিতে বৃহস্পতিবার বেলা ১১টায় ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষক-শিক্ষার্থী-কমকর্তা-কমচারীদের সঙ্গে নিয়ে রাজু ভাস্কর্যের সামনে অবস্থান নেবেন তারা। এছাড়া একই দাবিতে ঢাকা শহরের প্রতিটি শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে শিক্ষার্থীরা নিজ নিজ প্রতিষ্ঠানের সামনে অবস্থান কর্মসূচি পালন করবে। কর্মসূচি ঘোষণার পর শিক্ষার্থীরা শাহবাগ থেকে অবস্থান তুলে নিলে বিকাল ৩টার পর ওই মোড় হয়ে আবার যান চলাচল শুরু হয় বলে পুলিশ কর্মকর্তারা জানান।

 

 

শেয়ার করুন:

Leave a Reply

Your email address will not be published.