দুই বছরের মধ্যেই তৈরি হবে শেখ হাসিনা ক্রিকেট স্টেডিয়াম

 

দক্ষিণাঞ্চল ডেস্ক

শেখ হাসিনা আন্তর্জাতিক ক্রিকেট স্টেডিয়ামের আনুষ্ঠানিক যাত্রা শুরু হলো গতকাল শনিবার। প্রজেক্ট ইমপ্লিমেনসন কমিটির (প্রকল্প বাস্তাবায়ন কমিটি) প্রথম বৈঠকের মধ্য দিয়ে শুরু হলো এ যাত্রা। দুই বছরের মধ্যেই স্টেডিয়ামটি নির্মাণ কাজ শেষ হবে বলে আশা করছে এ কমিটি।

পঞ্চাশ থেকে ষাট হাজার ধারন ক্ষমতাসম্পন্ন, একাডেমি, খেলার মাঠ, সুইমিং পুল, জিমনেশিয়াম ও ইনডোর সুবিধাসহ এটি বিশ্বের অন্যতম সুন্দর একটি স্টেডিয়াম হবে আশা করছি বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ড (বিসিবি)। নামমাত্র মূল্যে সরকার ইতোমধ্যেই স্টেডিয়ামটি নির্মাণের জন্য বোর্ডকে পূর্বাঞ্চলে ৩৭ দশমিক ৪৭ একর জমি দিয়েছে।

বিসিবির গ্রাউন্ডস কমিটির চেয়ারম্যান মাহবুব আনামের নেতৃত্বে স্টেডিয়াম নির্মাণের জন্য পাঁচ সদস্যের কমিটি গঠন করেছে বোর্ড। কমিটির অপর সদস্যরা হলেন জালাল ইউনুস, লোকমান হোসেন ভুইয়া, শেখ সোহেল এবং এ্যাডভোকেট আনোয়ার হোসেন।

বৈঠক শেষে আজ মাহবুব আনাম জানান, ‘আজ ছিল প্রকল্প বাস্তবায়ন কমিটির প্রথম বৈঠক। মূলত এটা ছিল পরিচিতি সভা। কিভাবে আমরা পরিকল্পনা বাস্তবায়ন করব তার একটা রূপরেখো তৈরি করা হয়েছে। কমিটিতে বাইরে থেকে কিছু বিশেষজ্ঞকে অন্তর্ভুক্ত করা হবে। প্রকৌশল বিশ্ববিদ্যালয় থেকে প্রতিনিধি থাকবে। যারা অডিট করবে তাদের মধ্য থেকেও প্রতিনিধি নিয়ে আমরা সামনের দিকে অগ্রসর হবো।’

তিনি বলেন, কাজ শুরু করার পর স্টেডিয়ামটি নির্মাণে দুই বছর সময় লাগবে। বিসিবির ইচ্ছে আছে এটাকে বিশ্বের অন্যতম সেরা স্টেডিয়াম বানানোর।

আনাম বলেন, ‘দুই বছরের মধ্যে কাজ শেষ করার বিষয়ে আমরা আশাবাদী। মাননীয় প্রধানমন্ত্রী প্রতিকী মূল্যে রাজউক থেকে আমাদের এ জমি দিয়েছেন। এ মাস থেকেই আমরা জরি মালিকানা বুঝে নিতে শুরু করব। মালিকানা পেয়ে আমরা যাতে সামনে এগিয়ে যেতে পারি।’

তিনি জানান, এটা দেশের প্রধান স্টেডিয়াম হলেও অন্যগুলো যথাযথভাবে দেখভাল করা হবে, মনিটর করা হবে। তবে বোর্ডের প্রশাসনিক কাজকর্ম মিরপুর শেরে বাংলা স্টেডিয়াম থেকে সরিয়ে নেয়া হবে কিনা সে বিষয়ে নিশ্চিত কিছু বলতে পারেননি আনাম।

শেয়ার করুন:

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *