March 3, 2024
আঞ্চলিকলেটেস্টশীর্ষ সংবাদ

খুলনা শহরে ইজিবাইকে ঘুরে ঘুরে কুকুরের মাংসের বিরিয়ানি বিক্রি

 জবাই করা কুকুর ও জবাইয়ের সরঞ্জামসহ আটক ৪
এক মাস ধরে ভ্রাম্যমান বিরিয়ানি বিক্রেতাদের কাছে সরবরাহ করা হতো এই মাংস : পুলিশ

দ. প্রতিবেদক
খুলনার খালিশপুরে কুকুরের মাংস গরু বা খাসি বলে বিক্রির মাধ্যমে অর্থ উপার্জন করে আসছিল একটি চক্র। কুকুরের সেই মাংস দিয়ে তৈরি করা হতো বিরিয়ানি, যা খুলনা শহরে ইজিবাইকে ঘুরে ঘুরে বিক্রি করা হতো। এছাড়াও বিভিন্ন হোটেল-রেস্তোরাঁয় তৈরি হচ্ছিল চপসহ বিভিন্ন মুখরোচক খাবার। এমনই একটি চক্রের ৪ সদস্যকে আটক করেছে পুলিশ। বুধবার বিকেল খুলনা মহানগরীর খালিশপুরস্থ খুলনা পলিটেকনিক ইনস্টিটিউটের মধ্যে একটি পরিত্যক্ত ভবন থেকে জবাই করা কুকুরের মাংসসহ তাদের আটক করা হয়।
আটককৃতরা হলেন- চক্রের মূলহোতা খালিশপুরস্থ ডলার হাউজ মোড় এলাকার লিংকন হাওলাদারের ছেলে অষ্টম শ্রেণির ছাত্র তাজ (১৬), খালিশপুর বঙ্গবাসী মোড় এলাকার নর্থ জোন-২৩ এর হাবিবুর রহমানের ছেলে মো. আবু সাইদ (৩৭), ২ নম্বর নেভিগেট এলাকার কুতুব আলীর ছেলে মো. সিয়াম (১৬), চরের হাট এলাকার শোভন সরদারের ছেলে প্রেম সরদার (১৬)। এদের মধ্যে আবু সাঈদ কুকুরের মাংসের ক্রেতা ও ভ্রাম্যমান বিরিয়ানি বিক্রেতা। ঘটনার সঙ্গে জড়িত আরমান ও উৎস এখনো পলাতক রয়েছে।


এ ঘটনায় তাৎক্ষণিক সংবাদ পেয়ে জেলা নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট আব্দুল্লাহ আল ইমরান ও উপজেলা প্রাণিসম্পদ কর্মকর্তা প্রিয়ংকর কুন্ডুর উপস্থিতিতে আসামিদের কে খালিশপুর থানায় হস্তান্তর করে মামলার প্রস্তুতি চলছে।
পুলিশ ও স্থানীয়রা জানায়, এক মাস ধরে কয়েকজন তরুণ এলাকার বিভিন্ন স্থান থেকে কুকুর ধরে বাগানের মধ্যে পলিটেকনিক ইনস্টিটিউটের পরিত্যাক্ত ভবনে নিয়ে যেত। বেশ কয়েকবার একই ঘটনার পুনরাবৃত্তি হওয়ায় স্থানীয়দের সন্দেহ হয়। গতকাল বুধবার বিকেলে এলাকাবাসী ওই চারজনকে একটি কুকুর নিয়ে বাগানের দিকে যেতে দেখে। সন্দেহ হওয়ায় খবর দিলে পুলিশ এসে তিনজনকে আটক করে। পরে বিরিয়ানি রান্না করে বিক্রি করে এমন একজনকেও আটক করা হয়। এসময় সেখানে পা বেঁধে জবাই করে রাখা একটি কুকুর পাওয়া যায়। এছাড়া আরও কয়েকটি কুকুরের দেহাবশেষ পাওয়া যায় পরিত্যাক্ত ভবনটিতে।
খালিশপুর থানা পুলিশের ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মোঃ আনোয়ার হোসেন বলেন, এক মাস ধরে তারা খাসি-গরুর কথা বলে অল্প দামে কুকুরের মাংস বিক্রি করতো। স্থানীয়দের মাধ্যমে খবর পেয়ে পলিটেকনিক ইনস্টিটিউটের পরিত্যক্ত ভবন থেকে চারজনকে আটক করা হয়েছে। এসময় সেখানে হাত-পা বাঁধা জবাই করা একটি কুকুর পাওয়া যায়।


ওসি আরও বলেন, জিজ্ঞাসাবাদে তারা জানিয়েছে এক যুবক তাদের মাস খানেক আগে কুকুরের মাংস বিক্রির প্রস্তাব দেয়। তাদের দাবি, বিরিয়ানি রান্না করে নগরীর বিভিন্ন স্থানে বিক্রি করতো। এছাড়া কম দামে তারা কুকুরের মাংস সরবরাহ করত। নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট, পশু চিকিৎসক এসেছেন। আটকদের বিরুদ্ধে প্রাণি কল্যাণ আইনে ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

দক্ষিণাঞ্চল প্রতিদিন/ জে এফ জয়

শেয়ার করুন: