July 19, 2024
আন্তর্জাতিকলেটেস্ট

ইন্ডিয়া ও ভারতের তফাত কী, দাঁতন করতে করতে যা বলেছিলেন লালু প্রসাদ যাদব

ভারতে শুরু হতে যাচ্ছে শিল্পোন্নত ও বিকাশমান অর্থনীতির জোট জি–২০–এর সম্মেলন। সম্মেলন উপলক্ষে পাঠানো আমন্ত্রণপত্রে ‘প্রেসিডেন্ট অব ভারত’ লেখা নিয়ে চলছে বিতর্ক। এরই মধ্যে বিহারের সাবেক মুখ্যমন্ত্রী লালু প্রসাদ যাদবের একটি পুরোনো ভিডিও ইন্টারনেটে ছড়িয়ে পড়েছে। তাতে ইন্ডিয়া ও ভারতের তফাত ব্যাখ্যা করেছেন তিনি।

ওই ভিডিও আসলে এনডিটিভিকে দেওয়া রাষ্ট্রীয় জনতা দলের (আরজেডি) নেতা লালু প্রসাদের একটি সাক্ষাৎকার। তাতে নিমের দাঁতন দিয়ে দাঁত মাজতে মাজতে কথা বলছিলেন তিনি। একসময় তাঁকে জিজ্ঞাসা করা হয়, দিল্লিতে নিমের দাঁতন তিনি পান কি না? জবাবে লালু প্রসাদ বলেন, পাওয়া কঠিন, কারণ দিল্লি ইন্ডিয়ার আওতায় পড়ে। আর বিহারের পাটনা শহর ভারতের অধীনে।

আসলে জি–২০–এর ওই আমন্ত্রণপত্র পাঠানো হয়েছে ইংরেজিতে। তাতে ‘প্রেসিডেন্ট অব ইন্ডিয়া’ না লিখে ‘প্রেসিডেন্ট অব ভারত’ লেখা হয়েছে। এমনকি সম্মেলনে আমন্ত্রিত বিদেশি প্রতিনিধিদের জন্য তৈরি পুস্তিকাতেও ‘ভারত’ শব্দ ব্যবহার করা হয়েছে। আজ বুধবার সকালে সামনে আনা একটি নথিতেও প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদিকে ‘প্রাইম মিনিস্টার অব ভারত’ উল্লেখ করা হয়েছে।

এসবের কারণেই জল্পনা চলছে, ইন্ডিয়া নাম পরিবর্তন করে হয়তো ভারত রাখা হতে পারে। কারণ, এতে এখন রাজনৈতিক রং লেগেছে। অনেকের ধারণা, নাম পরিবর্তন করতে ১৮ থেকে ২২ সেপ্টেম্বর পর্যন্ত পার্লামেন্টে বিশেষ অধিবেশন ডাকা হতে পারে। তবে সরকারের পক্ষ থেকে বিশেষ অধিবেশনের বিষয়ে এখনো কোনো ঘোষণা আসেনি। এটি এখনো জল্পনার পর্যায়েই রয়েছে।

ভারতে ২৮ দলের বিরোধী জোটের নাম রাখা হয়েছে ‘ইন্ডিয়া’। এ কারণে ক্ষমতাসীন বিজেপি সরকার দেশের নাম পরিবর্তন করতে পারে বলে অভিযোগ তুলেছে বিরোধীরা। দিল্লির মুখ্যমন্ত্রী অরবিন্দ কেজরিওয়াল প্রশ্ন করে বসেছেন, বিরোধী জোটের নাম যদি এখন বদল করে ‘ইন্ডিয়া’ থেকে ‘ভারত’ করা হয়, তখন কেন্দ্রীয় সরকার কী করবে?

গতকাল মঙ্গলবার কেজরিওয়াল বলেন, ‘বিরোধী দলগুলো একটি জোট গঠন করে নাম রেখেছে “ইন্ডিয়া”। শুধু এ জন্য কি কেন্দ্র সরকার দেশের নাম বদলাবে? এ দেশ ১৪০ কোটি মানুষের; কোনো একটি দলে নয়। জোটের নাম যদি এখন বদলিয়ে “ভারত” রাখা হয়, তাহলে তারা কি দেশের নাম “ভারত” থেকে বদলিয়ে আবার বিজেপি রাখবে?’

বিজেপি নেতারা যদিও ‘ইন্ডিয়ার’ বদলে ‘ভারত’ নামকরণকে স্বাগত জানিয়েছেন। এর পক্ষে সাফাইও গাচ্ছেন তাঁরা। তাঁদের অভিযোগ, এর বিপক্ষে যাঁরা কথা বলছেন, তাঁরা দেশ ও সংবিধানবিরোধী। বিজেপি নেতাদের ভাষ্য, ‘ভারত’ শব্দটি সংবিধানের অনুচ্ছেদ ১–এ রয়েছে। তাতে বলা হয়েছে, ‘ইন্ডিয়া, যেটি কিনা ভারত, গঠিত হবে বিভিন্ন রাজ্য নিয়ে।’

ইন্টারন্যাশনাল ডেস্ক

শেয়ার করুন: