March 4, 2024
জাতীয়লেটেস্টশীর্ষ সংবাদ

আগুন সন্ত্রাস কীভাবে বন্ধ করতে হয় জানা আছে: প্রধানমন্ত্রী

বিএনপির ডাকা হরতাল-অবরোধে আগুন সন্ত্রাসের কথা উল্লেখ করে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেছেন, ‘জ্বালাও-পোড়াও আর ধ্বংস করাই বিএনপির চরিত্র। তাদের আন্দোলন অগ্নিসন্ত্রাস, মানুষ খুন করা। এই আন্দোলন বন্ধ করতে হবে। অন্যথায় কীভাবে বন্ধ করতে হয় তা আমাদের জানা আছে।’

শনিবার (৪ নভেম্বর) বিকেলে রাজধানীর আরামবাগে আওয়ামী লীগ আয়োজিত ঢাকা বিভাগীয় মহাসমাবেশে এসব কথা বলেন তিনি।

প্রধানমন্ত্রী বলেন, বিএনপি-জামায়াতের রাজনীতি মানেই ধ্বংস। ২৮ অক্টোবর তারা কী করল? রাস্তায় পিটিয়ে পুলিশ হত্যা করল, আওয়ামী লীগ ও মহিলা লীগের নেতাকর্মীদের ওপর হামলা করল। এটাই কী রাজনীতি? অথচ পুলিশ সেদিন যথেষ্ট সহনশীলতা দেখিয়েছে।

দেশবাসীর প্রতি আহ্বান জানিয়ে প্রধানমন্ত্রী বলেন, যারা আগুন দিয়ে পোড়াবে তাদের প্রতিরোধ করতে হবে। দরকার হলে তাদের ধরে ওই আগুনের মধ্যে ফেলতে হবে। যে হাত দিয়ে আগুন দেবে সেই হাত আগুনে পুড়িয়ে দিতে হবে। তাহলেই তাদের শিক্ষা হবে।

সরকারপ্রধান বলেন, ‘তারা সাধারণ মানুষের বাসে আগুন দেয়, গাড়িতে আগুন দেয়। কিন্তু তারা ভুলে যাচ্ছে, তাদের গাড়ি নাই? তারা গাড়িতে চড়ে না? তাদের জিনিসপত্র নাই? জনগণ যদি সেগুলো পোড়াতে শুরু করে তাহলে কোথায় যাবে, কী করবে সেটাও তাদের ভাবা উচিৎ। আমরা ওসবে বিশ্বাস করি না দেখে, এখনো ধৈর্য ধরে আছে দেশের মানুষ। কিন্তু কতদিন?’আগুন সন্ত্রাসীদের সাবধান করে শেখ হাসিনা বলেন, ক্ষমতা দেবার মালিক আল্লাহ। খালেদা জিয়া বলেছিলেন, আওয়ামী লীগ আগামী একশ বছরেও ক্ষমতায় আসতে পারবে না। আল্লাহর রহমতে ওই কথা তাদের বেলায় ফলে গেছে।

বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের মতোই দেশের মানুষের জন্য নিজের জীবন উৎসর্গ করেছেন উল্লেখ করেন শেখ হাসিনা বলেন, ‘বাবা সোনার বাংলা গড়তে চেয়েছিলেন। আমিও জীবন দিয়ে হলেও মানুষের সেবা করতে চাই। সে লক্ষ্যে আওয়ামী লীগ সরকার কাজ করছে।’

সরকার প্রধান বলেন, ‘দেশের মানুষ যেন ভালো থাকে সেজন্য আওয়ামী লীগ নানা উন্নয়নমূলক কাজ করছে। আমরা বয়স্ক ভাতা, প্রতিবন্ধী ভাতা, শিক্ষার্থীদের বৃত্তি ও বিনামূল্যে বই দিচ্ছি। দেশের মানুষের বাঁচানোর জন্য সব ব্যবস্থা নিচ্ছি।’

এর আগে বেলা আড়াইটার দিকে মেট্রোরেলের আগারগাঁও থেকে মতিঝিল পর্যন্ত অংশের উদ্বোধন করেন প্রধানমন্ত্রী। আগারগাঁও মেট্রো স্টেশনে নিজ হাতে টিকিট কেটে এই অংশের উদ্বোধন করেন তিনি। পরে সেখান থেকে মেট্রেরেলে চেপে মতিঝিলে যান তিনি। সেখানে এমআরটি লাইন-৫ (উত্তর রুট) নির্মাণকাজের উদ্বোধন করেন। পরে আওয়ামী লীগ আয়োজিত বিভাগীয় মহাসমাবেশে অংশ নেন।

প্রধানমন্ত্রী মেট্রোরেল নিয়ে বলেন, ‘আজ (শনিবার) আগারগাঁও থেকে মতিঝিল পর্যন্ত মেট্রোরেল উদ্বোধন করলাম। এই মেট্রোরেল ঢাকাবাসীর জন্য উপহার। তবে মেট্রোরেল ব্যবহারে আমাদের যত্নবান হতে হবে, যাতে করে এটির ক্ষতি না হয়।

শেয়ার করুন: