অন্ধ্র প্রদেশে বন্যায় ১৭ জনের মৃত্যু

ভারতের অন্ধ্র প্রদেশে অতিরিক্ত বৃষ্টিপাতের কারণে সৃষ্ট বন্যায় এখন পর্যন্ত ১৭ জনের মৃত্যু হয়েছে। নিখোঁজ রয়েছেন আরও শতাধিক মানুষ।

শনিবার (২০ নভেম্বর) এ খবর জানিয়েছে ভারতীয় গণমাধ্যম আনন্দবাজার পত্রিকা।

বন্যায় মন্দিরের শহর বলে পরিচিত রাজ্যের তিরুপতিতে শত শত তীর্থযাত্রী আটকা পড়েছেন। তিরুমালা পাহাড়ে যাওয়ার রাস্তাঘাট এবং হাঁটার পথসহ আশপাশের বাড়িঘর ও মন্দিরগুলো বন্ধ করে দেওয়া হয়েছে। তিরুপতির উপকণ্ঠে অবস্থিত স্বর্ণমুখী নদী প্লাবিত হয়েছে এবং জলাধারগুলো উপচে পড়ছে। অসংখ্য মানুষ এ বন্যায় আটকা পড়েছেন।

প্রশাসন সূত্রে জানা গেছে, কাড়াপা জেলায় হড়পা বানে যাত্রিবোঝাই একটি সরকারি বাস ভেসে গিয়েছে। বেশির ভাগ যাত্রীকে উদ্ধার করা গেলেও ১২ জনকে এখনো উদ্ধার করা যায়নি। অন্য দিকে রাজমপেটের মণ্ডপল্লি, আকেপাড়ু এবং নন্দলুরুতে ৩০ জন ভেসে গিয়েছেন। তিরুপতি থেকে কাড়াপা যাওয়ার সড়ক এবং রেলপথ ক্ষতিগ্রস্ত হওয়ায় যানবাহন এবং ট্রেন চলাচল বন্ধ রাখা হয়েছে।

বন্যায় রেললাইন, সড়ক ও বিভিন্ন স্থান ব্যাপক ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে। সবচেয়ে বেশি ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে রায়ালসীমা অঞ্চল। এছাড়া চিত্তুর, কাদাপা, কুরনুল এবং অনন্তপুর জেলায়ও বন্যার প্রভাব পড়েছে। ২৫ নভেম্বর পর্যন্ত বন্ধ ঘোষণা করা হয়েছে কাদাপা বিমানবন্দর।

ক্ষতিগ্রস্ত অঞ্চলের পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে দুর্যোগ মোকাবিলা টিম পাঠানো হয়েছে। যারা আটকা পড়েছেন তাদের উদ্ধারে কাজ চলছে।

শেয়ার করুন:

Leave a Reply

Your email address will not be published.