খুলনায় প্রেমিকের সঙ্গে ঘুরতে গিয়ে গণধর্ষণের শিকার ছাত্রী, আটক ৬

দ: প্রতিবেদক

খুলনায় এক যুবকের সঙ্গে ঘুরতে গিয়ে ঘুরতে গিয়ে গণধর্ষণের শিকার

হয়েছে নবম শ্রেণীর এক মাদ্রাসাছাত্রী (১৬)। এ ঘটনায় ছয় জনকে আটক করা

হয়েছে। বৃহস্পতিবার রাত ১২টা থেকে শুক্রবার দুপুর ১২টা পর্যন্ত রূপসার

শ্রীফলতলা, সাতক্ষীরা ও বাগেরহাটের মোড়েলগঞ্জের বিভিন্ন স্থানে অভিযান

চালিয়ে তাদের আটক করা হয়।

আটকরা হলেন- রূপসার শ্রীফলতলার শরীফুল ইসলাম (২১), আসাদউল­াহ (২০), কামরুল

(১৮), নাঈম (১৮), বাগেরহাটের মোড়েলগঞ্জের রিয়াজ (১৮) ও সাতক্ষীরার সোহেল

(১৮)। ধর্ষণের শিকার মাদ্রাসাছাত্রী বর্তমানে খুলনা মেডিকেল কলেজ (খুমেক)

হাসপাতালের ওয়ান স্টপ ক্রাইসিস সেন্টারে (ওসিসি) ভর্তি রয়েছে।

খুলনা জেলার অতিরিক্ত পুলিশ ‍সুপার (এএসপি) মো. নূর আলম সিদ্দিকী বলেন,

ভুক্তভোগী মেয়েটি মোড়েলগঞ্জে নানা বাড়িতে থেকে একটি মাদ্রাসায় পড়া

লেখা করে। তার মা থাকেন খুলনা মহানগরীর সোনাডাঙ্গা ট্রাক স্ট্যান্ডের কাছে।

মেয়েটি মায়ের কাছে বেড়াতে এসে গত বুধবার (৩ অক্টোবর) তার প্রেমিক

মোড়েলঞ্জের নিয়ামুল নামের এক যুবকের সঙ্গে হাদিস পার্কে ঘুরতে যায়।

মেয়েটির সঙ্গে তার আট বছরের এক খালাতো ভাই ছিল।

নিয়ামুল মেয়েটিকে ঘুরতে নেওয়ার কথা বলে রূপসার শ্রীফলতলার একটি

বাগানে নিয়ে যায়। সেখানে আগে থেকে অবস্থান করা বাকিদের মধ্যে দুইজন

ও নিয়ামুল মেয়েটিকে একটি পরিত্যক্ত ঘরে নিয়ে ধর্ষণ করে। বাকিরা ছোট

ছেলেটিকে পাশে ঘুরতে নিয়ে যায়। ঘটনার পর মেয়েটি বাসায় এসে তার

মায়ের কাছে বিষয়টি জানায়। বৃহস্পতিবার ভুক্তভোগীর মা রূপসা থানায় এসে

মৌখিক অভিযোগ করেন।

এএসপি বলেন, তাৎক্ষণিকভাবে আমার নেতৃত্বে পুলিশের বিশেষ টিম অভিযানে

নামে। অভিযান চালিয়ে ছয় জনকে আটক করা হয়েছে। এ ঘটনায় রূপসা থানায়

একটি ধর্ষণ মামলার প্রস্তুতি চলছে। মূল আসামি নিয়ামুলকে আটক করার জন্য

অভিযান অব্যাহত রয়েছে।

 

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *